Bengali Meaning of “The Eyes Have It” by Ruskin Bond -“The Eyes Have It” – এর বাংলা মানে। WBCHSE, Class XII, West Bengal.

The Eyes Have It – Bengali Meaning, Bengali Meaning of “The Eyes Have It” by Ruskin Bond.

“The Eyes Have It ” – এর বাংলা মানে। প্রতিটি লাইনের বাংলা মানে। নিয়মিত এই বাংলা মানে পড়লে এই পিস টি সম্পর্কে আর কোনো জটিলতা থাকবে না। নিয়মিত পড়ুন এবং সমস্ত প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিয়ে পরীক্ষায় আশানুরূপ ফল করুন।

রোহানা পর্যন্ত ট্রেনের কামরাটিতে আমি একাই ছিলাম, তারপর একটি বালিকা প্রবেশ করল (ট্রেনের কামরায়)। যে দম্পতি তাকে বিদায় জানাতে এসেছিল তারা ছিল সম্ভবত তার বাবা-মা। তাদেরকে খুব উদ্বিগ্ন মনে হয়েছিল মেয়েটির স্বচ্ছন্দ নিয়ে, এবং মহিলাটি বালিকাটিকে পুঙ্খানুপুঙ্খ নির্দেশ দিল কোথায় জিনিসপত্র রাখতে হবে, কখন জানালার বাইরে উঁকি মারা চলবে না, এবং কিভাবে অজানা (বা অচেনা) ব্যক্তিদের সঙ্গে কথা বলা এড়িয়ে চলতে হবে – এইসব সম্পর্কে।

তারা (বালিকাটিকে) বিদায় জানালো এবং ট্রেনটি স্টেশন থেকে বেরিয়ে গেল। যেহেতু আমি  সম্পূর্ণ অন্ধ  ছিলাম সেই সময়,  আমার চোখগুলো সংবেদনশীল ছিল কেবল মাত্র আলোতে এবং অন্ধকারে, আমি বলতে সক্ষম ছিলাম বালিকাটি দেখতে কেমন ছিল; কিন্তু যেভাবে চটিগুলি তার পায়ের গোড়ালিতে আঘাত করছিল তার থেকে জানতে পারলাম সে নিশ্চয়ই চটি জুতো পড়ে ছিল।

আমার কিছুটা সময় লাগতো তার চেহারা সম্পর্কে জানতে, এবং হয়তো বা কখনোই জানতে পারতাম না। কিন্তু আমি তার কণ্ঠের শব্দ পছন্দ করতাম, এবং এমনকি তার চটিজোড়া শব্দ পছন্দ করতাম।

“আপনি কি একেবারেই দেহরা পর্যন্ত যাবেন?” আমি জিজ্ঞাসা করলাম।

আমি নিশ্চয়ই একটা অন্ধকার কোণে বসে ছিলাম, কারণ আমার কন্ঠস্বর তাকে চমকে দিল. সে সামান্য বিস্ময় প্রকাশ করল এবং বলল “আমি জানতাম না অন্য কেউ এখানে আছে”.

ভালো কথা, এমনটা প্রায় ঘটে যে, ভালো দৃষ্টিশক্তি সম্পন্ন ব্যক্তিরা দেখতে ব্যর্থ হয় তাদের সামনে ঠিক কি রয়েছে। তাদের মগ্ন থাকার অনেক কিছুই আছে, আমি মনে করি। যেখানে সেই সমস্ত লোক যারা দেখতে পায় না (অথবা খুব কম দেখে) তাদেরকে শুধু আবশ্যিক জিনিসগুলো নিয়ে মগ্ন থাকতে হয়, তাদের অবশিষ্ট ইন্দ্রিয়গুলিতে যা কিছুই ভীষণভাবে দাগ কাটুক না কেন।

“আমি  তোমাকে দেখিনি,” আমি বললাম, কিন্তু তোমাকে (কামরার ভেতরে) আসতে শুনেছি”।

আমি অবাক হয়ে গেলাম যে  আমি সক্ষম হবে কিনা তাকে বুঝতে পারা থেকে বাঁধা দিতে যে আমি অন্ধ ছিলাম। যদি আমি আমার জায়গায় বসে থাকি, আমি ভাবলাম, এটা ভীষণ কঠিন হবে না।

বালিকাটি বলল, “ আমি সাহারানপুরে নামবো। আমার পিসিমা ওখানে আমাকে নিতে আসবেন”।

“তাহলে খুব বেশি পরিচিত না হওয়াই ভালো,” আমি উত্তর দিলাম, “পিসিমারা সাধারণত: ভীষণ ভয়ানক প্রাণী হন।”

“আপনি কোথায় যাবেন?” সে জিজ্ঞাসা করল।

“দেহরাতে, এবং তারপর মুসৌরিতে”।

“ও আপনি কি সৌভাগ্য বান। আমার ইচ্ছা করে মুসৌরি যেতে। আমি পাহাড় ভালোবাসি, বিশেষকরে অক্টোবর মাসে।”

“হ্যাঁ, এটাই হলো সবথেকে ভালো সময়”, আমি বললাম, আমার স্মৃতিচারণ করে।“ পাহাড়গুলি ঢাকা থাকে বুনো ডালিয়া ফুল দিয়ে, রোদ ভীষণ মধুর লাগে, এবং রাত্রিতে তুমি (লগ ফায়ার) কাঠ জ্বালিয়ে আগুনের সামনে বসে থাকতে পারো এবং কিছুটা ব্রান্ডি পান করতে পারো। বেশিরভাগ পর্যটক চলে গেছে, এবং রাস্তাগুলি শান্ত এবং প্রায় ফাঁকা। হ্যাঁ, অক্টোবরই হলো সবথেকে ভালো সময়।”

সে নীরব থাকলো। আমি বিস্মিত হলাম এই ভেবে যে আমার কথাগুলো তার মনে দাগ কাটলো কিনা, অথবা সে আমাকে কল্পনাবিলাসী নির্বোধ মনে করল কি না। তারপর আমি একটা ভুল করে ফেললাম।

“বাইরেটা দেখতে কেমন লাগছে?” আমি জিজ্ঞাসা করলাম।

 সে আশ্চর্যজনক কিছুই পেল না এই প্রশ্নের মধ্যে। সেকি ইতিমধ্যেই লক্ষ্য করে ফেলেছে যে আমি দেখতে পাই না? কিন্তু তার পরবর্তী প্রশ্নটি আমার সমস্ত সন্দেহ দূর করে দিল।

“আপনি কেন জানালার বাইরের দিকে দেখছেন না?” সে জিজ্ঞেস করল।

আমি সহজে বার্থ ধরে এগিয়ে গেলাম এবং জানালার সঙ্গে লাগানো তাকটাকে ধরলাম। জানালাটি খোলা ছিল, এবং আমি জানালার মুখোমুখি বসলাম, বাইরের দৃশ্য দেখার ভান করে। আমি শুনতে পেলাম ইঞ্জিনের শব্দ, চাকার ঘর্ঘর শব্দ, এবং, আমার মনের চোখে, আমি দেখতে পেলাম টেলিগ্রাফের পোস্টগুলি দ্রুতগতিতে  উদ্ভাসিত হচ্ছে.

“তুমি কি লক্ষ্য করেছো”, আমি সাহস করে বললাম যে গাছগুলি কে মনে হচ্ছে তারা যেন ছুটছে যখন আমাদেরকে মনে হচ্ছে আমরা স্থির দাঁড়িয়ে আছি?”

“ওটা সব সময়ে ঘটে”, সে বলল, “ আপনি কি কোনো জীবজন্তু দেখতে পাচ্ছেন?”

“ না”, আমি  আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে উত্তর দিলাম। আমি জানতাম যে সেখানে কোন জীবজন্তু থাকে না দেহরার কাছে জঙ্গলে।

আমি জানলার থেকে ঘুরলাম এবং মেয়েটির দিকে মুখ করলাম, এবং আমরা কিছুক্ষণ নীরবে বসে থাকলাম।

“তোমার একটি আকর্ষণীয় মুখ আছে,” আমি মন্তব্য করলাম। আমি বেশ সাহসী হয়ে উঠছিলাম, কিন্তু এটি ছিল একটি নিরাপদ মন্তব্য। খুব কম সংখ্যক বালিকা তোষামোদকে বাধা দিতে পারে। সে সুন্দর করে হাসল – একটি পরিষ্কার সুরেলা হাসি।

“শুনতে ভালো লাগলো আমার একটি আকর্ষণীয় মুখ আছে। আমি ক্লান্ত হয়ে গেছি লোককে বলতে শুনে যে আমার একটি সুন্দর মুখ আছে।” 

ও, তাহলে তোমার সুন্দর মুখ আছে, আমি ভাবলাম – এবং আমি জোরে বললাম: “ ভালো কথা, একটি আকর্ষণীয় মুখও সুন্দর হতে পারে।”

“ আপনি তো ভীষণ সাহসী  যুবক,” সে বলল, “ কিন্তু আপনি এত গম্ভীর কেন?”

আমি ভাবলাম, তখন, আমি তার জন্য হাসতে চেষ্টা করি, কিন্তু হাসির চিন্তা আমাকে কেবলমাত্র সমস্যা-কবলিত এবং একাকী করে তুলল।

“আমরা খুব শীঘ্রই তোমার স্টেশনে পৌঁছে যাব,” আমি বললাম।

“ভগবানকে ধন্যবাদ এটা একটা অল্পসময়ের ট্রেন যাত্রা। আমি ট্রেনে বসে থাকা সহ্য করতে পারি না দু তিন ঘন্টার বেশি।”

তবুও আমি সেখানে বসে থাকতে প্রস্তুত ছিলাম তাই যেকোনো সময়ের জন্য, শুধুমাত্র তার কথা শোনার জন্য। তার কণ্ঠস্বরে ছিল পাহাড়ি ঝর্ণার ঝলক। যেইমাত্র সে ট্রেন থেকে নেমে যাবে, সে আমাদের সংক্ষিপ্ত পরিচয় ভুলে যাবে; কিন্তু এটি আমার সঙ্গে থেকে যাবে ট্রেনযাত্রার বাকি সময় পর্যন্ত, এবং আরও কিছুক্ষণ পর পর্যন্ত।

ইঞ্জিনের বাঁশি তীক্ষ্ণ স্বরে বেজে উঠল, ট্রেনের চাকা গুলি তাদের শব্দ এবং ছন্দ পরিবর্তন করল, বালিকাটি উঠে দাঁড়ালো এবং তার জিনিসপত্র সংগ্রহ করতে শুরু করলো। আমি ভাবতে লাগলাম সে তার চুলগুলিকে খোঁপা বেঁধে রেখেছে, নাকি বিনুনী করে রেখেছে; হয়তো বা চুলগুলি তার কাঁধে আলগাভাবে ঝুলছিল অথবা খুব ছোট করে কাটা ছিল? 

ট্রেনটি ধীরে ধীরে স্টেশনে প্রবেশ করল। বাইরে, কুলিদের এবং বিক্রেতাদের চিৎকার ছিল এবং ছিল উচ্চৈঃস্বর-যুক্ত মহিলা কণ্ঠস্বর দরজার কাছে; ওই কণ্ঠস্বরটা অবশ্যই বালিকাটির পিসিমার হবে।

“বিদায়”, বালিকাটি বলল।

সে আমার খুব কাছেই দাঁড়িয়েছিল, এতটাই কাছে যে তার চুলের সুগন্ধ ছিল মাতাল করা. আমি চেয়েছিলাম আমার হাত তুলতে এবং তার চুল স্পর্শ করতে, কিন্তু সে চলে গেল। কেবলমাত্র তার চুলের সুগন্ধ তখনও সেখানে থেকে গেল যেখানে সে দাঁড়িয়েছিল। দরজার কাছে চলছিল একটা বিশৃঙ্খলা। একটি লোক, কামরায় উঠে, তোতলাতে তোতলাতে ক্ষমা চাইল। তারপর দরজাটা জোরে শব্দ করে বন্ধ হয়ে গেল, এবং পৃথিবীটা আবার বিচ্ছিন্ন হয়ে গেল। আমি আমার বসার জায়গায় ফিরে এলাম। প্রহরী বাঁশি বাজালো এবং আমরা এগিয়ে চললাম। আরো একবার, আমাকে একটি খেলা খেলতে হবে এবং এইবারে এক নতুন সহযাত্রী।

The Eyes Have It: Analysis

The Eyes Have It – Descriptive, SAQ, MCQ Type Questions, Grammar, Correction of Errors Everything for HS (Class 12) Students.

To get more educational updates, visit our website onlineexamgroup.com. Get Suggestions of all subjects of Madhamik and HS Final exam.

Share with your friends

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *